উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আরসা-আরএসও গোলাগুলিতে নিহত ৫

কক্সবাজারের উখিয়া বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মিয়ানমারের আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) ও আরাকান সলিডারিটি অর্গানাইজেশনের (আরএসও) মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় পাঁচজন নিহত হয়েছে। আজ শুক্রবার (৭ জুলাই) ভোরে উখিয়ার ক্যাম্প-৮ ওয়েস্টে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন—ক্যাম্প-৮ ওয়েস্টের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন (২৪), মোহাম্মদ হামীম (১৬), ক্যাম্প-১৩ এর নুরুল আমিন (২৪) ও ক্যাম্প-১০ এর মো. নজিমুল্লাহ। অপরজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। তারা সবাই আরসার সদস্য।

রোহিঙ্গারা জানান, ক্যাম্পের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে আরসা এবং আরএসওয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছে। এরই জেরে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হয়।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত ৮-এপিবিএন পুলিশের এএসপি (অপারেশন্স অ্যান্ড মিডিয়া) মো. ফারুক আহমেদ বলেন, ‘আজ ভোরে ক্যাম্পে দুই দল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীর মধ্যে গোলাগুলির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে তিন জনের মরদেহ পাওয়া যায়। আহত আরও দুজনকে আইওএম পরিচালিত হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।’

ফারুক আহমেদ বলেন, ‘ক্যাম্পে একাধিক সশস্ত্র গ্রুপের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বে খুনোখুনি বাড়ছে। এরইমধ্যে ভোরে দুই দল সন্ত্রাসীর গোলাগুলির ঘটনায় পাঁচজন নিহত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে, নিহত পাঁচ জনই আরসার সদস্য।’

ফারুক আহমেদ আরও বলেন, ‘ক্যাম্পে কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চলবে না। যারাই অপরাধে জড়াবে, তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। হত্যাকারীদের ধরতে অভিযান চলছে।’

এদিকে, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে কুতুপালং ১ নম্বর ক্যাম্পে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের ছুরিকাঘাতে এবাদুল্লাহ নামে এক রোহিঙ্গা মাঝি নিহত হয়।