মিন্টো রোডে বিএনপিনেতা গয়েশ্বরকে মধ্যাহ্নভোজ করালেন ডিবি প্রধান হারুন

রাজধানীর ধোলাইখালে আজ শনিবার (২৯ জুলাই) বেলা ১১টার কিছুক্ষণ পরে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের সময় স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে হেফাজতে নেয় পুলিশ। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কার্যালয়ে আনা হয়। সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদ গয়েশ্বর চন্দ্রকে মধ্যাহ্নভোজ করান।

ডিবির একটি সূত্র জানা যায়, মধ্যাহ্নভোজে বিএনপিনেতা গয়েশ্বরকে নিজ হাতে খাবার পরিবেশন করেন ডিবি প্রধান। খাবারের আয়োজনে ছিল মাছ ও মাংসের পাশাপাশি কয়েক ধরনের ফল। তিনি নিজেও এক টেবিলে বসে দুপুরের খাবার খান।

সূত্র আরও জানায়, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে যথাযথ মর্যাদায় তার বাসায় পৌঁছে দেওয়া হয়।

এদিকে নিজ কার্যালয়ে পৌঁছে গণমাধ্যমে কথা বলেন গয়েশ্বর। তিনি জানান, সংঘর্ষের সময় তার মাথা ফেটে যায়। তাকে কোমর থেকে নিচ পর্যন্ত বেধড়ক পেটানো হয়েছে।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘সংঘর্ষের সময় আমার মাথা ফেটে রক্তাক্ত হয়ে পড়েছি। পরে কোমর থেকে নিচ পর্যন্ত বেধড়ক পিটিয়েছে। সেখান থেকে পুলিশ ধরে নিয়ে রাজারবাগের পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসা দি।দেওয়া হয়। এরপর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়েও নেওয়া হয়েছিল। সেখান থেকে অফিসে দিয়ে গেল।’

শারীরিক অবস্থা এখন কেমন জানতে চাইলে গয়েশ্বর বলেন, ‘ইনজুরি হওয়ার পর সুস্থ হতে সময় লাগবে। এখন স্যালাইন দিতে হবে।’

আজ বেলা ১১টার পর রাজধানীর ধোলাইখালে বিএনপির অবস্থান কর্মসূচিকে ঘিরে পুলিশ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষের একপর্যায়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের সরে যেতে বলে পুলিশ। সেসময় তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন নিয়ে অনড় অবস্থানের কথা জানায়। একপর্যায়ে কাঁদানে গ্যাস শেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। জবাবে ইট-পাটকেল ছোড়েন অবস্থানকারীরা।